রানীশংকৈলে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন

রানীশংকৈলে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবীতে মানববন

গীতি গমন চন্দ্র রায় গীতি : ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার বাচোর ইউনিয়নের ভাংবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা খলিলুর রহমানের ছেলে নাসিরুল ইসলামকে(২২)গত ২০সেপ্টেম্বর ২০২১ সোমবার বিকালে করিমুল ইসলাম ও তার পরিবারের লোকজন নাসিরুলকে গাছের সঙ্গে বেঁধে মধ্য যুগীয় কায়দায় নির্মমভাবে নির্যাতন করলে নাসিরুল মারাত্মক অচেতন হয়ে পড়ে,এসব খবর পেয়ে রানীশংকৈল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নাসিরুলকে উদ্ধার করে রানীশংকৈল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করেন।নাসিরুলের অবস্থার অবনতি হলে তাকে রেফার্ড করে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।এরপরও অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে দিনাজপুর মেডিকেল থেকে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি করা হয়।উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে রানীশংকৈল উপজেলার ভাংবাড়ি গ্রামের মনিরুজ্জামানের পুত্র খলিলুর রহমান বাদী হয়ে রানীশংকৈল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।যাহার মামলা নং-০৭ তাং২৪/০৯/২১ইং, এজাহারভুক্ত আসামি ৫ জন ধারা ১৪৩/৩৪১/৩২৩/ ৩২৫/ ৩০৭/৩৭৯/৫০৬/ ১১৪ ধৃত আসামি শাশুড়ি সেলিনা আক্তার,অবশিষ্ট আসামীগন পলাতক রয়েছে। জানা যায়,উপজেলার ভাংবাড়ি গ্রামের দক্ষিণপাড়া খলিলুর রহমানের ছেলে নাসিরুল ইসলাম(২২)একই গ্রামের করিমুলের মেয়ে কেয়ামনি(১৮)সাথে প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে উভয়ে বিবাহ করেন এরপর শশুড়বাড়ি বউয়ের সঙ্গে দেখা করতে গেলে নাসিরুলকে রশি দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে শাশুড়ি সহ শশুরবাড়ির লোকজন তাকে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন করেন।এসব নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে অনেকে ভিডিও শেয়ার করে অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানালে উক্ত ঘটনা স্থলে পুলিশ গিয়ে নাসিরুলকে উদ্ধার করে নির্যাতনকারীর শাশুড়ি কে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরন করেন।এ ঘটনার প্রেক্ষিতে আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবিতে রাণীশংকৈল উপজেলা পরিষদের সামনে মহাসড়কে মানববন্ধন করেন সুশীল সমাজের লোকজন।মানববন্ধন শেষে রানীশংকৈল উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।

Please follow and like us:
0
20
Pin Share20

Leave a reply

Minimum length: 20 characters ::
RSS
Follow by Email
YOUTUBE
PINTEREST
LINKEDIN