লাকসাম বউ-শাশুড়ির ষড়যন্ত্রে আপন মা-ভাবীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ

লাকসাম বউ-শাশুড়ির ষড়যন্ত্রে আপন মা-ভাবীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টারঃ কুমিল্লা লাকসাম বউ শাশুড়ি ষড়যন্ত্রে আপন মা-ভাবিকে হত্যার পরিকল্পনা ঘটনাটি ঘটেছে লাকসাম পৌরসভা ৯ নং ওয়ার্ড পূর্ব সাতবাড়িয়া গ্রামে।পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড পূর্ব সাতবাড়িয়া আমির হোসেন এর ছেলে ইমরান হোসেন(২৪) আপন মা ও ভাবীকে হত্যা চেষ্টা চালায়।ইমরানের মা বিষয়টি সামাজিক ভাবে মীমাংসা চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে থানা এসে ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে।মামলা সূত্রে জানা যায়, ইমরান হোসেন তার বউ শাশুড়ির ষড়যন্ত্রে আপন মা ও ভাবিকে প্রাণে মেরে ফেলার পরিকল্পনা ও হত্যার চেষ্টা চালায়।(১নং) বিবাদী ইমরান হোসেন মা বলেন, ১নং বিবাদী আমার ছেলে ও ২নং বিবাদীনি ছেলের বউ রুমি আক্তার এবং ৩নং বিবাদীনি আমার বেয়াইনের বিরুদ্ধে থানা একটি অভিযোগ দায়ের করি।কারন ১নং বিবাদী খুব খারাপ, উশৃংখল, আইন অমান্যকারী প্রকৃতির লোক। আমার ছেলে ১নং বিবাদী আমার কোনো বরন পোষণ ও খোঁজ-খবর নেয় না নিয়ে আমার ও পরিবারের উপর প্রকাশ্যে হত্যা ও নির্যাতন করিয়া আসিতেছ।০১নং ও ০২নং বিবাদীগনের নির্যাতন সহ্য করিতে না পারি বিষয়টি পারিবারিক ও সামাজিক ভাবে মীমাংসা চেষ্টা করিলে ২ নং ৩ নং বিবাদীগনের প্ররেচনা পড়িয়া আমার ছেলে সামান্য বিষয়কে কেন্দ্র করিয়া কারনে-অকারণে আমাদের সবার উপর জোর জুলুম করিয়া ঘরে আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। এরই ধারাবাহিকতায় (২৪/০৯/২১ইং) দুপুর ০১:৩০ ঘটিকার সময় ছেলের বউ এবং বেয়াইনের প্ররোচনায় পড়িয়া আমার ছেলে আমাকে অশ্লীল আচরণ করে গালাগালি করা শুরু করে।আমি প্রতিবাদ করিলে আমার ছেলে ইমরান আমার উপর ক্ষিপ্ত হইয়া আমাকে মারধর করেছে আসলে আমার সেজু ছেলের স্ত্রী রুমি আক্তার (২১) বাঁধা দিলে, আমার ছেলে রুমি আক্তারকে লাথি মারিয়া মারধর করে। পরে আমি ছেলের বউকে উদ্ধার করিতে আসলে আমার ছেলে আমার হাতে লাঠি দিয়ে আঘাত করে। এতে বাম হাতের কব্জিতে নীল দাগ দেখতে পাই। শোর চিৎকার করিলে বাড়ির আশে-পাশের লোকজন আসিয়া আমাদের উদ্ধার করে।আমার ছেলে প্রকাশ্যে প্রানে মেরে ফেলার হুমকিসহ বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদান করে।আর যে কোনো সময় আমাদের বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে বলে লাকসাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করি। উল্লেখ্য, এ বিষয় ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাব্বানী কে অভিহিত করলে সাবেক কাউন্সিলর বাবুল মিয়াকে জানাইলে তিনি আইনের আশ্রয় নেওয়ার জন্য আশ্বস্ত করেন। সাবেক কাউন্সিলর বাবুল মিয়া বলেন,আমি বিষয়টি শুনেছি কিন্তু আমি এ বিষয় মীমাংসা করেতে ব্যর্থ হইলে আমি ইমরানের মা ও ভাবীকে আইনের দ্বারস্থ হতে পরামর্শ প্রদান করি ।

Please follow and like us:
0
20
Pin Share20

Leave a reply

Minimum length: 20 characters ::
RSS
Follow by Email
YOUTUBE
PINTEREST
LINKEDIN