পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ করায় শাহরাস্তিতে অভিযোগকারী বিরুদ্ধে ঘরপোড়ার মামলা

পুলিশ সুপারের নিকট অভিযোগ করায় শাহরাস্তিতে অভিযোগকারী বিরুদ্ধে ঘরপোড়ার মামলা

শাহারাস্তি থেকে মোঃ হাবিবুর রহমান ভূঁইয়াঃ পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে অভিযোগ করায় শাহরাস্তিতে অভিযোগকারীদের বিরুদ্ধে মামলা অভিযোগে জানা যায় শাহরাস্তি উপজেলার মেহের দক্ষিণ ইউনিয়নের জেএল নাম্বার ৬৩ নং মৌজার বি এস খতিয়ান ভুক্ত ১৮১৫, ১৮১৯, ১৮২০, ১৮২১, ১৮২৩,১৮৬৩, ১৮৬৪,১৮৬৫, ১৮৬৬, ১৮৬৭নং দাগে মোট ১ একর ৯শতাশ জমির মালিক মৃত কেরামত আলীর পুত্র মোঃ সাইফুল ইসলাম গং। পূর্বে তাদের কাছে কোন কাগজপত্র না থাকায় তারা জানতে পারেনি তারা কতটুকু জমির মালিক সম্প্রতি তারা তাদের কাগজপত্র উত্তোলন করে দেখতে পায় যে তারা এক একর 9% ভূমির মালিক যদিও তারা ১ একর ৯ শতাংশ ভূমির মালিক হয়ে থাকে কিন্তু ততটুকু তাদের দখলে নেই। তারা জানায় মৃত আলতাফ আলী এর দুই ছেলে কেরামত আলী ও মিন্নত আলী, কেরামত আলী যতটুক জমির মালিক মিন্নত আলী ও কতটুকু জমির মালিক। কেরামত আলীর পুত্র মোঃ সাইফুল ইসলাম গং এ প্রতিনিধিকে জানান আমাদের ১৮৬৭ দাগে জমি ছিল ১৮ শতাংশ রাস্তায় গিয়েছ ৪ শতাবাঁকী রইল ১৪ শতাংশ। তারা আমাদের ৭ শতাংশ সহকারে মোট ১৪ শতাংশ দখল করে আছে। আমরা আমাদের ৭শতাংশ সম্পত্তি ফেরত চাইলে তারা আমাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দেয় লাঠিসোঠা নিয়ে দৌড়ে আসে এ ব্যাপারে আমরা জেলা পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট একটি অভিযোগ দায়ের করি গত ৩১/০৮/২০২১ইং। যাতে আইনানুগ ব্যবস্থা মাধ্যমে বিষয়টির সুরাহা হয়। কিন্তু গত ০৯ সেপ্টেম্বর শুক্রবার আনুমানিক ভোর রাতে ১৮৬৭ নং দাগে উত্তোলিত ঘরের দক্ষিণ পর্শ্চিম কর্ণারে কে বাা কাহারা আগুন লাগিয়ে দেয় এতে ঘরের কিছু অংশ পুড়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন শাহরাস্তি থানার পুলিশ। এ সময় স্থানীয় লোকজন জানায় এই ঘরের ভিতরে শাহজাহান ভুতু নামে যৌনক ব্যক্তির একটি সিএনজি ও কিছু মালামাল ছিল সিএনজি ও মালামাল গুলি কখন সরানো হয়েছে এই ব্যাপারে সিএনজির মালিক শাহজাহান মিয়ার কাছে এই প্রতিনিধি জানতে চাইলে তিনি বলেন ঐদিন ফজরের নামাজের পূর্বে আমি আমার সিএনজি বের করে নিয়ে যাই। ওই সময় আগুন দেখতে পেয়েছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন কোনো আগুন ছিল না। বিজ্ঞ মহলের জিজ্ঞাসা তাহলে কে দিয়েছে আগুন? এর রহস্যইবা কী? সি এনজির মালিক শাহজাহান ভতুকে জিজ্ঞাসা করলেই ঘর পোড়ানোর রহস্য বেরিয়ে আসবে। অন্যথায় রহস্য রহস্য হইয়ে থেকে যাবে।

Please follow and like us:
0
20
Pin Share20

Leave a reply

Minimum length: 20 characters ::
RSS
Follow by Email
YOUTUBE
PINTEREST
LINKEDIN