কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস পল্লীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড,শতাধিক দোকান ভস্মীভূত ” অর্ধশত কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস পল্লীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড,শতাধিক দোকান ভস্মীভূত ” অর্ধশত কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি,(ঢাকা) : ঢাকার কেরানীগঞ্জের গার্মেন্টম পল্লী কালিগঞ্জ গুদারাঘাটে নুর সুপার মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রায় শতাধিক দোকান ভস্মীভূত হয়েছে। মার্কেটটির দোকান গুলো টিন এবং কাঠ দিয়ে তৈরি থাকায় আগুন দ্রæত ছড়িয়ে পড়ে । এতে প্রায় অর্ধশত কোটি টাকার মালামাল পুড়ে গেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। রোববার রাত ১১টায় আগুনের সূত্রপাত হয়। নূর সুপার মার্কেট এর ৩নং গলির কাছে বিদ্যুতের তারের সংস্পর্শে বিস্ফোরণ হলে একটি স্পূলিংগ অদিতি গার্মেন্টসের সিরাজের দোকানে গিয়ে পড়লে তাৎক্ষণিকভাবে দোকানে আগুন লেগে যায়। স্থানীয়রা দোকানের তালা ভেঙে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে কাপড়েরর মার্কেট হওয়ায় দোকান গুলোতে আগুন দ্রæত ছড়িয়ে পড়ে। পরবর্তীতে ফায়ার ব্রিগেড এর সদরদপ্তর, তেজগাঁও স্টেশন সহ দশটি স্টেশনের ১৩৫ জন কর্মীর নিরলস প্রচেষ্টায় প্রায় দুই ঘন্টা পরে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এ অগ্নিকান্ডে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।নুর সুপার মার্কেটের দোকানদার প্র্যক্ষদর্শী খান লেদার এর মালিক তারেক জানান, ২নং গলির ফাস্টফুডের দোকানদার মেহেদী সর্বপ্রথম অদিতি গার্মেন্টসের সিরাজের দোকানে ধোয়া উঠতে দেখে চিৎকার করে লোকজন জড়ো করে। পরবর্তীতে স্থানীয় কয়েকজন মিলে দোকানের তালা ভেঙে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেলেও কাপড়ের মার্কেট থাকায় তাৎক্ষণিকভাবেই আগুন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। এ সময় আশেপাশের দোকানদাররা নিজেদের মালামাল নিরাপদ স্থানে সরানোয় ব্যস্ত থাকায় বেশ কিছু মালামাল লুটপাট হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। কেরানীগঞ্জ ব্যবসায়ী ও দোকান মালিক সমিতির সদস্যদের আগুন নেভানোর কাজে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সহায়তা করতে দেখা গেছে।নুরু সুপার মার্কেটের মালিক ব্যারিষ্টার শেখ ইসতিয়াক আহমেদ নিপু জানান, রোববার রাত ১১ টার দিকে আগুন লাগার খবর শুনতে পাই। অনেক দোকান আগুনে পুরে গেছে। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে প্রায় শতাধিক দোকানদার। এতে প্রায় অর্ধশত কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। আমি ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের প্রতি সহানুভুতি জানাচ্ছি।কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস ব্যবসায়ী ও দোকান মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মুসলিম ঢালী জানান, নূর সুপার মার্কেটে প্যান্ট,গেঞ্জি,পাঞ্জাবিসহ কিভিন্ন তৈরী পোশাকের প্রায় ৪শতাধিক দোকান ছিলো। করোনার ধকল সামাল দিতে মাত্র নব উদ্যমে দোকান খুলে নতুন করে পুঁজি সংগ্রহ করে দোকানদাররা আবার ব্যাবসা শুরু করেছিল,এর মধ্যে ভয়াবহ আগুনে সবকিছু কেড়ে নিল। আমরা ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করে তাদের বিভিন্ন ভাবে সাহায়্যের চেষ্টা করবো। ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (অপারেশন এন্ড মেইনটেনেন্স) লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিল্লুর রহমান তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় জানান, আগুন লাগার খবর শুনে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা দ্রæত ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। মার্কেটের গলি অনেক সরু থাকায় অগ্নিনির্বাপক কর্মীদের বেশ বেগ পেতে হয়েছে। তবে মার্কেটে নিজস্ব কোন অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা না থাকায় প্রাথমিকভাবে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে চাইলেও তাতে ব্যর্থ হয়। ফায়ার সার্ভিস এর পক্ষ থেকে চার সদস্যের একটি তন্ত— কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত শেষে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যাবে।

Please follow and like us:
0
20
Pin Share20

Leave a reply

Minimum length: 20 characters ::
RSS
Follow by Email
YOUTUBE
PINTEREST
LINKEDIN