Search
Thursday 2 April 2020
  • :
  • :
সর্বশেষ সংবাদ

শাহরাস্তির বেরকী গ্রামের রাশিদা খাতুনের স্বপ্ন ১টি ঘর পাওয়ার

শাহরাস্তি থেকে মোঃ হাবিবুর রহমান ভূঁইয়াঃ শাহরাস্তির রায়শ্রী (দঃ) ইউনিয়নের বেরকী গ্রামের মৃত মফিজুর রহমান এর পুত্র মোঃ ফারুক হোসেনর স্ত্রী রাশিদা খাতুন (২৭) ঝুপড়ির জরাজীর্ণ ঘরে অসহায় মানবেতার জীবনযাপন করছে। রিক্সা চালক স্বামীর অস্বচ্ছল পরিবারে দুটি সন্তান নিয়ে অসহায়ের জীবন যাপন করছে। তাদের একটি ছেলে একটি মেয়ে। গ্রামের পর্শ্চিম পাশে আমতলীর পর্শ্চিম উত্তর দিকে খালী মাঠে ৩ শতক জমির উপর বাড়ি বানিয়ে ঝুবরী একটি ঘরে স্বামী সন্তান নিয়ে বাস করছেন রাসিদা খাতুন। ফারুক হোসেন দুঃখ করে বলেন আমরা আওয়ামী পরিবারের সন্তান হয়েও সরকারী কোন সাহায্য পাই না। তাই আমার স্ত্রী গ্রাম করেআর আমি অটো রিক্সা চালাই। তারা বলেন আমরা তাদেরকে কিছু দিতে পারি না তাই আমরা সকল কিছু থেকে বঞ্চিত। জরাজীর্ণ ঘরে বসবাস করা অতিকষ্ট সাধ্য। যেখানে বৃষ্টির পানি পড়তেই ঘরে প্রবেশ করে। আমি শুনেছি অসহায় ও গরীবের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখহাসিনা যাদের জমি আছে ঘর নাই, ঘর করার সামর্থ নাই এমন লোকদের ঘর দিবে। কিন্তু আমরা কেন পাচ্ছি না জানিনা। আমি তখন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি ঘর পাওয়ার আশায় আবেদন করি। আমার মত অসহায় আর কেউ আছে কি না তা জানিনা। তবে একটি সরকারী ঘর আমি এবং আমার পরিবারের জীবন বদলে দিবে-আবেগ ভরা আকুতি নিয়ে কথাগুলো বলেছেন একমাত্র জরাজীর্ণ বসত ঘরটি প্রতিনিয়ত তাদের স্বপ্ন ভঙ্গের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ বিষয়ে ওই বাড়ি ও গ্রামের লোকজন বলেন, রাশিদা ও তার পরিবার অনেক অসহায়। তারাই প্রকৃত গৃহহীন। তাই তাদেরকে একটি বসত ঘর দেয়া একান্ত প্রয়োজন বলে মনে করেন তারা।স্থানিয় ইউপি সদস্য ডাাঃ আমিনুল ইসলাম বলেন,রাশিদার স্বামী পরিবার অত্যন্ত গরীব ও অসহায়। আমি তাদের সম্পর্কে জানি। একটি সরকারী ঘর হলে তাদের আবাসন দূর্দশা দূর হবে। তাই এই ঘরটি দেয়ার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে তিনি বিশেষ ভাবে অনুরোধ জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরো সংবাদ




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close