Search
Friday 21 February 2020
  • :
  • :
সর্বশেষ সংবাদ

বাঁশের খুঁটিতে বিদ্যুৎ সংযোগ-নিয়মবহির্ভূর্ত, ঝুঁকিপূর্ণ

যেখানে বিদ্যুৎ সংযোগের প্রচলিত অবকাঠামোর অভাব, সেখানে সরবরাহ ও প্রয়োজনের মধ্যে সমন্বয় ঘটাতে বাঁশের খুঁটিতে বিদ্যুতের তার টানিয়ে সংযোগ নেওয়ার দৃশ্য আমাদের দেশে বিরল নয়। কিন্তু খোদ রাজধানীর খিলগাঁওয়ের নাসিরাবাদ এলাকায় যেভাবে একই পদ্ধতিতে অন্তত ২০ হাজার বিদ্যুৎ সংযোগ নেওয়া হয়েছে, তা কেবল বিস্ময় জাগানিয়া নয়; রোমহর্ষকও। শনিবারের সমকালে এ সংক্রান্ত শীর্ষ প্রতিবেদনের সঙ্গে যে আলোকচিত্র ছাপা হয়েছে, তা দেখে যে কারও মনে হতে পারে, ঢাকার নিম্নাঞ্চলীয় কোনো বিলে নিম্নবিত্তদের জন্য প্রাথমিক বসতি নির্মাণের খুঁটি পুঁতে রাখা হয়েছে। প্রতিবেদনে রয়েছে আরও বিস্তারিত_ রাস্তার দু’পাশ, ফাঁকা মাঠ, বাসাবাড়ির আশপাশে অসংখ্য বাঁশের খুঁটি আর তারের ছড়াছড়ি। বাঁশ কোনোটি মোটা, কোনোটি চিকন। তাতে পেঁচানো তারের সমারোহ দেখে যে কারও হকচকিয়ে যাওয়া স্বাভাবিক। এই বিপুল সংখ্যক সংযোগ নেওয়াকে সমকালের প্রতিবেদনে যথার্থই ‘মহোৎসব’ বলা হয়েছে; কিন্তু এটা আদতে ‘মরণ-মহোৎসব’। বিদ্যুতের বিপজ্জনক সংযোগ ছাড়া আর কিছু নয়। বস্তুত এভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ কেবল বিপজ্জনক নয়, বেআইনিও। ঢাকা বিদ্যুৎ বিতরণ কর্তৃপক্ষের নির্বাহী প্রকৌশলীও সমকালের কাছে স্বীকার করেছেন, এভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার কোনো নিয়ম নেই। কিন্তু ‘লোকজনের প্রয়োজনের কথা চিন্তা করে’ সেটা রোধ করা যায়নি। আমরা জানি, বিদ্যুৎ উৎপাদন ও সরবরাহের ক্ষেত্রে বর্তমান সরকার ধারাবাহিক উদ্যোগ গ্রহণ করে আসছে। গত দুই বছরে বেশ কয়েকবারই দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদন ১০ হাজার মেগাওয়াট ছাড়িয়ে গেছে। সাত-আট বছর আগে গোটা দেশ ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে খাবি খেলেও বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা চার হাজার মেগাওয়াটও ছুঁতে পারত না। বিদ্যুৎ সংযোগের অভাবে আবাসন ব্যবসা এবং শিল্প স্থাপনেও এসেছিল স্থবিরতা। বিশেষ করে গ্রামীণ জনপদে বিদ্যুতের জন্য হাহাকার ছিল সবচেয়ে বেশি। বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদেই বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধিতে বিশেষ উদ্যোগ স্বস্তি এনেছে_ স্বীকার করতেই হবে। আমরাও চাই, দেশের সব নাগরিক প্রয়োজন অনুযায়ী বিদ্যুৎ পাক। দীর্ঘদিন ধরে নতুন গ্রাহক সংযোগ প্রদান বন্ধ থাকার সময় আমরা এই সম্পাদকীয় কলামেই অনেকবার ‘উদ্ভাবনী’ ক্ষমতা প্রয়োগ করে গ্রাহকদের বিদ্যুৎ দেওয়ার দাবি জানিয়ে এসেছি। কিন্তু বাঁশের খুঁটিতে তার টানিয়ে বিদ্যুৎ বিতরণ আর যাই হোক কোনো সমাধান হতে পারে না। এর ফলে নাগরিকদের বরং ঝুঁকি ও বিপদের মধ্যেই ঠেলে দেওয়া হয়। আমরা দেখতে চাই, অবিলম্বে ওই এলাকায় প্রচলিত বিদ্যুতের খুঁটি ও সংযোগ স্থাপিত হয়েছে।
s.s.kal

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরো সংবাদ




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close