Search
Friday 21 February 2020
  • :
  • :
সর্বশেষ সংবাদ

দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষার্থে সংবাদ সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার: চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজার লালচান রোড এলাকায় প্রায় ২৫০ বছরের প্রাচীনতম শিব মন্দির ও বিশাল পুকুরসহ সংশ্লিষ্ট দেবোত্তর সম্পত্তি গ্রাস করায় লিপ্ত রয়েছে জ্যতিলাল চৌধুরী গং ও ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রশিদ।গতকাল সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে মোহাম্মদ আকরম খাঁ হলে বাংলাদেশ দেবত্তোর সম্পত্তি রক্ষা ও পুনরুদ্ধার সংরক্ষন জাতীয় কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষা ও পুনরুদ্ধার সংরক্ষণ জাতীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জহরলাল চক্রবর্তী। লিখিত বক্তব্যে জহরলাল চক্রবর্তী বলেন- এ দেবোত্তর সম্পত্তি ০৩/০৮/১৯২০ইং তারিখে রেজিষ্ট্রিকৃত ৪১৭৪ নং সাবকবলা মূলে বিগ্রহ শ্রী শ্রী সালেগ্রাম চক্র, শ্রী শ্রী বরদেশ্বর, শ্রী শ্রী রামসীতা, শ্রী শ্রী মদন মোহন, শ্রী শ্রী রাধামাদব বিগ্রাদির পক্ষে দেবোত্তরকৃত সম্পত্তি। মহামান্য সুপ্রীমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী একটি রিট পিটিশন আনয়ন করেন। যাহার নম্বরঃ ১৬৩২/২০১৭ । এই রিটপিটিশনে আদেশ হয়েছে পুকুর এবং দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষার জন্য। আরেকটি রিট পিটিশন আনয়ন করেছে বিশ্বজিৎ যাহার নাম্বার ৮৮৩৭/২০১৬ একোয়ার থেকে মন্দির রক্ষার জন্য। সেই পিটিশনও আদেশ রয়েছে। এই দেবোত্তর সম্পত্তি জ্যতিলাল গংরা তাদের দখলে নিয়ে উহা ঐ ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রশিদ বরাবরে হস্তান্তর করার হীন চক্রান্তে ও অভিপ্রায়ে বিজ্ঞ যুগ্ম জেলা জজ আদালত চট্টগ্রাম এতে ২০১৫ ইং সনের ১নং অপর জারী দাখিল করেন। এর ভিত্তিতে দখল নেওয়ার পায়তারায় লিপ্ত থাকার বিষয় বর্তমান সেবায়েত শ্রী বিশ্বজিত চক্রবর্তী অবগত হয়ে উল্লেখিত অপর মামলাদ্বয়ের ফেরবী ও তঞ্চক ডিক্রী বাতিল ও অকার্যকরী ঘোষণা চেয়ে বিজ্ঞ যুগ্ম জেলা জজ প্রথম আদালত চট্টগ্রাম এতে ২০১৮ইং সনের ৩৪৯ নং অপর মামলা দায়ের করেন এবং মামলার বিচার সাপেক্ষে ঐ অপর জারি ১/২০১৫ এর পরবর্তী যাবতীয় কার্যক্রম স্থগিতের প্রার্থনা করেন। তিনি বলেন, জ্যতিলাল চৌধুরী গং বিবাদী হিসেবে ঐ অপর মামলায় হাজির হয়ে লিখিত আপত্তি দাখিল করলে বিজ্ঞ প্রথম যুগ্ম জেলা জজ আদালত ঐ স্থগিত দরখাস্ত না মঞ্জুর করেন। এর বিরুদ্ধে সেবায়েত মহামান্য সুপ্রীমকোর্ট হাইকোর্ট বিভাগে ২০১৯ইং সনের ৩৬০৮ নং সিভিল রিভিশন দায়ের করেন। ঐ সিভিল রিভিশনে প্রাথমিক ভাবে রুল জারি করা হয় এবং পরবর্তী ৬ মাসের জন্য ঐ অপর জারি ১/২০১৫ এর যাবতীয় কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়। এর বিরুদ্ধে ঐ জ্যতিলাল চৌধুরী গং মহামান্য বাংলাদেশ সুপ্রীমকোর্ট আপিল বিভাগের মাননীয় চেম্বার জজ সমীপে ঐ স্থগিত আদেশের কার্যকারিতা স্থগিতের প্রার্থনা করে রিট পিটিশন পর লিভ টু আপীল নং ৩৮৬১/২০১৯ দায়ের করলে তিনি ঐ স্থগিত আদেশের কার্যকারিতা স্থগিত করে দিয়ে উহা পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানীর জন্য প্রেরণ করেন এবং আগামী ০৩/০২/২০২০ইং তারিখ শুনানীর জন্য দিন ধার্য্য করেন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জহরলাল চক্রবতী এ দেবোত্তর সম্পত্তি রক্ষার জন্য এ বিষয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় প্রধান বিচারপতি, মাননীয় আইনমন্ত্রী, মাননীয় তথ্য মন্ত্রী, মাননীয় সভাপতি আইন ও সংসদ বিষয়ক কমিটিসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।উক্ত সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- চারু চন্দ্র দাস ব্রম্মচারী, ইসকন ঢাকা আশ্রমের প্রধান স্বামীবাগ, ঢাকা, বিষ্ণু পদ ভৌমিক, সেবাইত ও সাধারণ সম্পাদক, শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারী আশ্রম ও মন্দির স্বামীবাগ, ঢাকা, পলাশ কান্তি দে, মুর্খপাত্র, জাতীয় হিন্দু মহাজোট, ঢাকা। উজ্জল চক্রবর্তী সেবাইত বলুয়ার দিঘী শশ্বানেশ্বরী কালি মন্দির, চট্টগ্রাম। সমির সরকার, সভাপতি, ঢাকা দক্ষিণ, জাতীয় হিন্দু মহাজোট, ঢাকা ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরো সংবাদ




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close