Search
Tuesday 25 February 2020
  • :
  • :
সর্বশেষ সংবাদ

ডিএনএ টেষ্ট ও ময়না তদন্ত করতে গর্ভপাতের মাটিচাপা লাশ উদ্ধার

আবু-হানিফ,বাগেরহাট অফিস : বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার ত্রিপল্লী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ভয় দেখিয়ে ধর্ষন ও গর্ভপাতের লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএনএ টেষ্ট ও ময়না তদন্তের জন্য গর্ভপাতের লাশটি দুই ধর্ষকের একজন দিপঙ্কর বিশ্বাসের উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের বড়বাগ গ্রামের বাড়ীর উঠান থেকে মাটি খুড়ে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময়ে চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মারুফুল আলম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মামুন হাসান মিলনসহ শিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান কাকা মিয়াসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এদিকে বুধবার রাতে অষ্টম শ্রেণীর ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের বড়বাক গ্রামের রবীন সরকারের ছেলে ধর্ষক সাধন সরকার ও একই গ্রামের বিজয় বিশ্বাসের ছেলে অপর ধর্ষক দিপঙ্কর বিশ্বাসের নামে চিতলমারী থানায় মামলা করেছেন। তবে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই রিপোর্ট লেখাকালীন কোন দুই ধর্ষকের কাইকেই আটক করতে পারেনি পুলিশ। গর্ভপাতের পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে গুরুতর অসুস্থ্য ওই ছাত্রীর চিকিৎসা চলছে চিতমারী উপজেলা হাসপাতালে। চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর শরিফুল হক মামলার উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, ছয় মাসের অধিক আগে শিবপুর ইউনিয়নের বড়বাক গ্রামের প্রতিবেশী সাধন সরকার (৩০) ও দিপঙ্কর বিশ্বাস (৩০) নামে দুই ধর্ষক ত্রিপল্লী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ভয় দেখিয়ে ক্রমান্বয়ে ধর্ষণ করে। মেয়ে বিষয়টি গোপন রাখে। এত সে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্তা হয়ে পড়ে। গত রবিবার দুই ধর্ষক সাধন সরকার, দিপঙ্কর ওই ছাত্রীকে গোপনে গোপালগঞ্জে নিয়ে গর্ভপাত ঘটায়। সেখান থেকে ফিরে এসে সে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। বুধবার সকাল থেকে রক্তক্ষরণ শুরু হলে সে বিষয়টি মা-বাবা কাছে খুলে বলে। পরিবারের পক্ষ থেকে ওইদিনই তাকে চিতলমারী হাসপাতালে ভর্তি করে। ধর্ষন ও গর্ভপাতের শিকার ওই ছাত্রীর বাবা (জ্ঞানদা বিশ^াস) বুধবার রাতে বড়বাক গ্রামের রবীন সরকারের ছেলে ধর্ষক সাধন সরকার ও একই গ্রামের বিজয় বিশ্বাসের ছেলে অপর ধর্ষক দিপঙ্কর বিশ্বাসের নামে চিতলমারী থানায় মামলা করেন। পেশায় নির্মাণ শ্রমিক এই দুই ধর্ষক বিবাহিত ও তাদের সন্তান রয়েছে। এদিকে স্কুল ছাত্রীটি গর্ভপাত ঘটিয়ে ধর্ষক দিপঙ্কর বিশ্বাসের বাড়ীর উঠানে মাটি খুড়ে পুতে রাখে। সেখান থেকে মাটিখুড়ে গর্ভপাতের লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে। স্ত্রী-সন্তান নিয়ে দুই ধর্ষকই বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে গেছে। পুলিশ তাদের আটকে অভিযান চালাচ্ছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।  চিতলমারী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পবিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. মামুন হাসান মিলন জানান, পাঁচ মাসের অন্তঃসত্তা ওই ছাত্রী গর্ভপাতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে গুরুতর অসুস্থ্য অবস্থার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা বর্তমানে উন্নতি হচ্ছে। চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মারুফুল আলম বলেন, ডিএনএ পরীক্ষা ও ময়না তদন্তের জন্য নবজাতকের মৃতদেহ মাটির নিচ থেকে উদ্ধার করে পাঠানো হয়েছে। হাসপাতালে অসুস্থ্য ছাত্রীর চিকিৎসার খোঁজ নেয়া হচ্ছে। দোষীরা যথাযথ শাস্তি পাক, এটা আমরা চাই।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরো সংবাদ




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close