Search
Sunday 5 April 2020
  • :
  • :
সর্বশেষ সংবাদ

চাঁদপুর মতলব উত্তরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শনে উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস

মনিরুল ইসলাম মনির : চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার নবুর কান্দি, ফতেপুর, এনায়েতনগর, চরপাথালিয়া, সুজাতপুর, নন্দলালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করে ছাত্র/ছাত্রীদের মাঝে স্কুল ড্রেস, টিফিন বক্স’সহ শিক্ষা উপকরণ বিতরণ ও এনায়েতনগর প্রাইমারী স্কুলে একটি বকুল গাছের চারা রোপন, উঠান বৈঠক ও মা সমাবেশে প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন, প্রাথমিক শিক্ষা খাতে অনবদ্য অবদান রাখায়, চট্টগ্রাম বিভাগের শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, জাতীয় পানি ব্যবস্থাপনা ফেডারেশনের সভাপতি, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।এমএ কুদ্দুস বলেছেন, সমৃদ্ধ ও উন্নত আগামীর বাংলাদেশ বিনির্মাণে প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়ন ও আধুনিকায়ন একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। রূপকল্প ২০২১ বা জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য জনসম্পদ উন্নয়নের কোনো বিকল্প নেই। টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে এখন মানসম্মত শিক্ষাকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। গুণগত মানসম্পন্ন প্রাথমিক শিক্ষা পরবর্তী শিক্ষার মূল ভিত্তি। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে প্রাথমিক শিক্ষাকে গুরুত্ব দেওয়া হয় সবচেয়ে বেশি। শিক্ষার প্রারম্ভিক পর্যায়টা সম্পন্ন করার পর শিক্ষার্থীদের অনেক ক্ষেত্রেই ছেড়ে দেওয়া হয়। অর্থাৎ শিক্ষার লাইন ভিন্ন করে দেওয়া হয়। কেউ কারিগরি বিষয় পড়ে, কেউ শিখে বিজ্ঞান বা কলা। এসব দেশে প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার ভিতটা থাকে শক্তিশালী, মান থাকে উন্নত।তিনি আরো বলেন, সময়ের সঙ্গে পরিবর্তিত হচ্ছে আমাদের জীবনধারা। একটা সময় ছিল, বাবা-মায়ের কাছে শিক্ষার প্রাথমিক পাঠ শেষে বিদ্যালয়ে পাঠানো হতো শিশুদের। এখন বাবার সঙ্গে মায়েরও ব্যস্ততা বেড়েছে। চাকরি, সামাজিক দায়িত্ব, সংসার গোছানোসহ নানা কিছুতেই ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন আমাদের মায়েরা। ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও অনেক মা তাদের সন্তানকে প্রাথমিক পাঠটুকুুও দিতে ব্যর্থ হচ্ছেন। এসব ক্ষেত্রে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষাকেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এই বিষয়টি মাথায় রেখেই সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সঙ্গে প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষাকেন্দ্রও চালু করেছে। এটি প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে বর্তমান সরকারের একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএম জহিরুল হায়াত, উপজেলা শিক্ষা অফিসার ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া, সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহফুজ মিয়া, সহকারী শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ অলিউল্লাহ, সহকারী শিক্ষা অফিসার আসাদুজ্জামান, উপজেলা শ্রমিক লীগ সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাবেক ছাত্রনেতা মিরাজ খালিদ, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা সুজন ভূঁইয়া, ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ নুরুজ্জামান, ফতেপুর পূর্ব আওয়ামী লীগ নেতা জয়নাল আবেদীন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সদস্য সচিব শাহজালাল মাষ্টার, ইসলামাবাদ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান, ইসলামাবাদ যুবলীগ নেতা আকতার হোসেন, ফতেপুর পূর্ব ছাত্রলীগ নেতা কামরুল হাসান, ফতেপুর পূর্ব যুবলীগ নেতা দেওয়ান ইসমাইল, দেওয়ান দেলোয়ার হোসেন, আনাস প্রধান, ছাত্রলীগ নেতা রাজিব, ফতেপুর পূর্ব ছাত্রলীগ নেতা জনি’সহ অন্যান্য নেতৃববৃন্দ।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরো সংবাদ




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close